We’ve Gone Numb.

I was browsing the blogs which I usually visits and found this post in Xanthis’s blog. You must read the post I think. I posted the article here. Thanks to Xanthis for his article. And I think your mind will say the same.


Advertisements

Bangladesh National Budget 2008-2009.

National Budget of Bangladesh for the year 2008-2009 has been announced. Click the following link to download the budget speech.

Download Budget Speech In English

Download Budget Speech In Bangla.

12th May, 2008: Full text of Chief Advisor’s address to nation (Bangla).

Following is the text of the address to the nation by Chief Adviser Fakhruddin Ahmed aired by Bangladesh Betar and Bangladesh Television yesterday: Click bellow to see the adress to the Nation (In Bangla).
Continue reading

শুভ নববর্ষ ১৪১৫

শুভ নববর্ষ ১৪১৫

সবাইকে নববর্ষ-এর
শুভেচ্ছা। চলে গেলো একটি বছর। এলো আরো একটি নতুন বছর। নতুন বছর বছর আপনার জীবনে
নিয়ে আসুক সুখ ও শান্তি।

আলু-মাছে বাঙ্গালী!!-আলুর ছড়া (তন্ময়)

এই আকর্ষনীয় কবিতাটি লিখেছেন তন্ময়। কবিতাটি আমি এই সাইট থেকে পরলাম এবং আপনাদের জন্য আমার ব্লগে পুনঃমুদ্রন করলাম। সবাই কবিতাটি পরবেন এবং অবশ্যই মন্তব্য করবেন।

_________________________________________________________________________________________________

বেশি করে আলু খান’
বলেছেন সরকার
ভাত খেলে মেদ বাড়ে
এটা জানা দরকার

প্রতিদিন দুপুরেতে
ভাত খেলে পরে
দু’চোখেতে রাজ্যের
ঘুম এসে ধরে

ভাত ঘুম দিয়ে দিয়ে
আজ মোরা বাঙ্গালী
শুধু কাজে ফাকি মেরে
হয়ে গেছি কাঙ্গালি

ভাত খেলে ক্ষতি হয়
সচেতন হও তাই
চলো সবে ভাতে ফেলে
বেশি করে আলু খাই

আলুর পোলাও খাব
আলু দিয়ে কাচ্চি
আলু দিয়ে পিঠা-পুলি
দেখ মোরা খাচ্ছি

আলু খাব ডিনারেতে
আলু দিয়ে নাস্তা
গরীবেরা খাবে রোজ
গোল-আলুর পান্তা

আলু দিয়ে বার্গার
আহা কিযে মজারে
ব্যাগ ভরে তাই শুধু
আলু কিনো বাজারে

আলু দাও চাইনিজে
আলু দিয়ে সিচুয়ান
আলুর ফিরনী খেয়ে
ভরে যায় মন-প্রান

আলু খেলে বল বাড়ে
রবে নাকো কাঙ্গালি
আজ থেকে মোরা তাই
আলু-মাছে বাঙ্গালী।।

_____________________________________________________________________________________________

আপনারা পুরো কবিতা এবং এই কবিতা নিয়ে বিভিন্ন জনের মন্তব্য পড়তে হলে এই লিঙ্ক এ জান-http://www.somewhereinblog.net/blog/bohurupiblog/28783793

জেনারেল মইন উ. আহমেদের চাকরির মেয়াদ আরও এক বছর বাড়ছে.

I found this post on this site http://www.sachalayatan.com/biplobr/14002
I am republishing it to my blog.
Let’s read this article.

জেনারেল মইন উ. আহমেদের চাকরির মেয়াদ আরও এক বছর বাড়ছে। আগামী জুনে তার চাকরির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিলো। আজ রাষ্ট্রপতি এক আদেশে তার চাকরির মেয়াদ বাড়ালেন।

লক্ষ্যনীয়, এই সেনা প্রধান কোনো যুদ্ধ ছাড়াই কিছুদিন আগে লেফটেনেন্ট জেনারেল থেকে জেনারেল পদে পদোন্নতি পান।

দুই. এর পর তিনি আমাদের শুনিয়েছেন, এক আশ্চর্য গণতন্ত্রের কথা। সেটি হচ্ছে, নিজস্ব ধাঁচের গণতন্ত্র – ওন ব্র্যান্ড অব ডেমোক্রেসি।

তিন. সম্প্রতি তিনি ভারতীয় সেনা বাহিনীর কাছ থেকে পেয়েছেন লাল গালিচা সম্বর্ধনা। পরে ভারতীয় সেনা প্রধান তাকে উপহার দেন ছয় – ছয়টি ঘোড়া। (নিন্দুকেরা অবশ্য বলেন, ছয় অশ্বশক্তি!)

চার. গত সপ্তাহে বাজার ঘুরে তিনি চালের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে জনগণকে আলু খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। আর গতকাল বাজারে গিয়ে বলেছেন, দেশে পর্যাপ্ত চালের মজুদ আছে। কোনো সঙ্কট নেই। আতংকের কারণে চালের দাম বাড়ছে।

কার তাতে কী!
————–

এখন কয়েকটি অনিবার্য প্রশ্ন ঘুরেফিরে আসছে:

এক. জে. মইনের চাকরির মেয়াদ বাড়ায় জাতির কী উপকার হবে?

দুই. এটি কী পুরোপুরি সামরিক শাসন জারি করার পাঁয়তারা?

তিন. দুই নম্বর প্রশ্নটির উত্তর ‘হ্যাঁ’ হলে আমরা কী নিশ্চিতভাবে প্রথমে একজন নতুন প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক, পরে নতুন একজন রাষ্ট্রপতি পেতে যাচ্ছি?

চার. এই অনিশ্চিত যাত্রার অবসান কী এ বছর ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনের মাধ্যমেই শেষ হবে?

কে জানে এই সব ‘অবান্তর প্রশ্নের পটু উত্তর’??

দেয়ালের লিখন, না যায় খণ্ডন
—————————

জরুরী অবস্থার ভেতরেও হঠাৎ হঠাৎ কিছু দেয়াল লিখন চোখে পড়ে। একজন সহব্লগার প্রেসক্লাবের পাশের দেয়ালের একটি লিখনের কথা জানিয়েছিলেন।

সেখানে নাকি লেখা ছিলো:

মর বাঙালি না খেয়ে ভাত,
ফখরুদ্দীনের আশির্বাদ!

খবরের লিঙ্ক

২৬শে মার্চ-স্বাধীনতা দিবস।

আজ ২৬শে মার্চ। বাংলাদেশ মানে আমাদের স্বাধীনতা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনেই শুরু হয়েছিল আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধ। তার পুর্বের রাত্রে মানে ২৫শে মার্চ পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী এই দেশের নিরীহ মানুষের উপর চালিয়েছিল বর্বর হামলা। তারপরের ইতিহাস সবার-ই জানা। আর নতুন করে বলার কিছু নেই।

আজ সেই মহান স্বাধীনতা দিবস। আজ আমরা শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করছি সকল শহীদ-দেরকে যারা দেশের জন্য দিয়ে গেছেন প্রাণ

সবাইকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা।